অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম 

বর্তমানে মানুষ এখন ট্রেনে করে  যাতায়াত করতে খুব বেশি পছন্দ করে।তবে ট্রেনের টিকেট কাটা অতটাও সোজা নয়, ট্রেনে করে ভ্রমণ করতে হলে আপনাকে সবার আগে টিকিট ক্রয় করতে হবে আর এই টিকেট করার জন্য একজন ব্যক্তিকে অনেক ভোগান্তির সম্মুখীন হতে হয়। অনেক মানুষের ভিড়ে থেকে এই  ট্রেনের টিকেট ক্রয় করতে হয় কিন্তু বর্তমানে  অনলাইনে ই-বুকিং চালু হওয়ার কারণে এখন এই ট্রেনের টিকেট ক্রয় করাটা অনেকটা সহজ হয়ে গিয়েছে। এখন মানুষ মুহূর্তের মধ্যেই অনলাইনের মাধ্যমে ট্রেনের টিকেট ক্রয় করে নিতে পারেন। তাই আজকে আমরা অনলাইনের মাধ্যমে কিভাবে  ট্রেনের টিকেট ক্রয় করা যায় তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা  করতে যাচ্ছি । আশা করব এই পোস্টটি সম্পুর্ণ পড়লে আপনি খুব সহজেই অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম  সম্পর্কে জানতে পারবেন।

অনলাইনে ট্রেনের টিকিট

দূরপাল্লার যাত্রী হিসেবে মানুষ এই ট্রেন ব্যবহার করে থাকেন এবং সাশ্রয়ী মনে করে থাকেন। ট্রেনে যাতায়াত করে অনেকটা সাশ্রয় হয় এবং খুব সহজে অনেকটা দুরুত্ব পৌঁছানো সম্ভব হয়। তবে ট্রেনের টিকেট কাটা অনেকটা মুশকিল হয়ে যায়। কিন্তু এখন খুব সহজেই  অনলাইনের মাধ্যমে ট্রেনের টিকেট ক্রয় করা যায় এজন্য আপনি বিভিন্ন পদ্ধতি অবলম্বন করতে পারেন ।আপনি চাইলে একটি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ট্রেনের টিকেট যেকোনো সময় যেকোনো মুহূর্তে খুব সহজেই ক্রয়  করে  নিতে পারেন ।তবে আপনাকে কোনো একটি ওয়েবসাইটে ঢুকে সবার আগে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে তা না হলে আপনি ট্রেনের টিকেট অনলাইনের মাধ্যমে কোন সাইটে ঢুকে ক্রয়  করতে পারবেন না ।

অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম

ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম

আপনি যেভাবে খুব সহজে ক্রিকেট অনলাইনের মাধ্যমে ক্রয় করবেন নিচে তা বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হচ্ছে ।

প্রথম ধাপঃ অনলাইনের মাধ্যমে টিকিট কাটার জন্য যেকোনো একটি ওয়েবসাইট লিঙ্ক এ প্রবেশ করুন, আপনি চাইলে এই লিংকে প্রবেশ করে খুব সহজে ট্রেনের  টিকেট ক্রয় করতে পারেন (https://eticket.railway.gov.bd/) ।

প্রথমে এই লিঙ্কে ক্লিক করে প্রবেশ করুন, তারপর নিচে দেওয়া পেজটির মত একটা পেজ দেখাবে।

প্রথম কাজটি হচ্ছে আপনাকে সবার আগে রেজিস্ট্রেশন করে নিতে হবে।

দ্বিতীয় ধাপঃ আপনাদেরকে আরেকটি বিষয় জানিয়ে দেই ওয়েবসাইট টি নতুন, আগে যদি রেজিস্ট্রেশন থাকে কোন সাইটে তাহলে সেটি গ্রহণযোগ্য হবে না,নতুন করে আপনাদেরকে একাউন্ট 

খুলে নিতে হবে ,এ্যাকাউন্ট খুলতে যা যা লাগবে তা হচ্ছে 

  • আপনার নাম
  • মোবাইল নাম্বার
  •  ইমেইল 
  • পরিচিতি নাম্বার
  •  পোস্ট কোড
  • ঠিকানা

নতুন একাউন্ট খোলার জন্য উপরের দেওয়া তথ্যগুলো আপনাকে অবশ্যই দিতে হবে ।

তৃতীয় ধাপঃ তারপর রেজিস্টার অপশনে গিয়ে  নিচের দেওয়া ছবিটি অনুযায়ী সকল তথ্য দিতে হবে ।

আপনার নাম, ইমেইল ,মোবাইল নম্বর, সঠিকভাবে দিয়ে দিন , তারপর আপনি একটা শক্তিশালী পাসওয়ার্ড তৈরি করুন যেটা আর কোথাও কখনো ব্যবহার করেন নি, তারপর আপনাকে আপনার এনআইডি কার্ডের নম্বর দিতে হবে যদি এই এনআইডি কার্ড না থাকে তাহলে আপনাকে বার্থ সার্টিফিকেট এর নাম্বার দিতে হবে, এবং সর্বশেষ  আপনার পোস্ট কোড ও  ঠিকানা দিন, এসব তথ্য দেওয়ার SIGN UP  এ  ক্লিক করুন । “Already Registered”  অপশনে ক্লিক করলে আপনাকে এ log in  পেইজে নিয়ে যাওয়া হবে ।তারপরে  6 ডিজিটের OTP  পিন নাম্বারের জন্য আপনাকে অপেক্ষা করতে হবে,OTP  নাম্বার দিয়ে আপনার মোবাইল নম্বরটি নিশ্চিত করতে হবে ।OTP নাম্বার দেওয়ার পর আপনাকে Continue  বাটনে ক্লিক করতে হবে, OTP নাম্বার সঠিক হলে  আপনার Account Registered Successful  লেখা আসবে ।তারপর আপনি দেখতে পারবেন  যে  আপনি লগইন অবস্থায় রয়েছেন ।

চতুর্থ ধাপঃ তারপর আপনি কোথা থেকে কোথায় যাবেন তার সঠিক ভাবে নির্বাচন করুন।

“Form” মানে আপনি যেখান থেকে যেতে চাচ্ছেন  সেখানকার ঠিকানা দিন  এবং “To” মানে আপনি যেখানে যেতে চাচ্ছেন সেখানকার ঠিকানা দিন, তারপর “Date of Journey” কবে যেতে চাচ্ছেন তার তারিখ দিন ।

তারপর “Choose a Class” মানে আপনি কিভাবে ভ্রমণ করতে যাচ্ছেন তা নির্বাচন করুন , মানের ক্রমানুসারে ৮ টি টিকেট এর মধ্যে যেকোনো টিকেট ক্রয় করতে পারেন ।সেই ক্যাটাগরি নির্বাচন করতে হলে Choose a Class অপশনে আপনাকে ক্লিক করতে হবে, ক্লিক করলেই সেই ৮ টি  অপশন আপনি দেখতে পারবেন ।

ট্রেনের মান অনুযায়ী আপনার সেই ক্যাটাগরি গুলোকে পছন্দ করে বাছাই করতে হবে ।তারপর Find Ticket এ ক্লিক করতে হবে। তারপর  আপনি আপনার ট্রেনের সকল যাতায়াতের গন্তব্য বিস্তারিত দেখতে পারবেন ।

পঞ্চম ধাপঃ

তারপর আপনি সিট নির্ধারণ করে নিবেন ।সিট নির্ধারণ করার আগে আপনার পছন্দমত একটি বগি নির্বাচন করে নিবেন।তারপর  উপরের দেওয়া ছবিটি দেখতে পাবেন সেখানে যে ছাই রঙের চিহ্ন রয়েছে  সেই সিটগুলো অলরেডি বুকিং হয়ে গেছে ।সিট বুকিং করতে হলে আপনাকে সেই সাদা সিট গুলো বুকিং করে নিতে হবে ।বুকিং করার জন্য আপনাকে সেই সিট গুলোর উপরে ক্লিক করতে হবে ।সিটগুলো সবুজ হলে আপনার সিট নির্ধারণ করা হয়ে যাবে ।তারপর সিট সংখ্যা এবং ভাড়া পরিমাণ দেখাবে, তারপর CONTINUE PURCHASE এ ক্লিক করুন ।

ষষ্ঠ ধাপঃ তারপর আপনাকে ভাড়া পরিশোধ করতে হবে ,ভাড়া পরিশোধ করার জন্য ডেবিট কার্ড ও ক্রেডিট কার্ড প্রয়োজন  হয় তবে এখন বিকাশের মাধ্যমে ভাড়া পরিশোধ করা যাবে ।ভাড়া পরিশোধ করার জন্য নির্দিষ্ট করে PAYMENT DETAILS  এ কি করতে হবে ,বিকাশ অপশনে ক্লিক করতে হবে , তারপর CONTINUE PURCHASE,ক্লিক করার পর তিন মিনিটের মধ্যে পুরো কার্যক্রম সম্পন্ন করতে হবে ,না হলে সম্পূর্ণ প্রক্রিয়াটি আবার প্রথম থেকে শুরু করতে হবে ।কনফার্ম করার পর আপনার মোবাইল নাম্বার দেওয়া হলে একটি OTP পিন  নাম্বার যাবে ,সে OTP পিন নাম্বার দেয়া হলে আপনার পেমেন্ট প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়ে যাবে ।

তারপর আপনি 30 মিনিটের মধ্যেই আপনি আপনার ইমেইলে একটি  মেসেজ পাবেন যেটাতে আপনি বুঝতে পারবেন যে আপনার টিকেট ক্রয় করা সম্পূর্ণ হয়ে গেছে, এখন আপনি চাইলে সেখান থেকে আপনার টিকেট প্রিন্ট আউট করে নিতে পারেন অর্থাৎ যাত্রা শুরুর আগে ছাপানো টিকিট সোর্স স্টেশন থেকে সংগ্রহ করে নিবেন ।

যেভাবে ট্রেনের টিকেট চেক করবেন

টিকেট Verify  করতে বাতে করতে নিচে দেওয়া ছবিটির উপরের ডান দিকে দেখতে পারবেন ভেরিফাই টিকেট একটি অপশন রয়েছে, সেখানে ক্লিক করুন

তারপরে কাজটি খুবই সোজা, তারপর দেখতে পারবেন যে সেখানে মোবাইল নম্বর এবং টিকেট নাম্বার চাচ্ছে, তো আপনি আপনার মোবাইল নাম্বার এবং টিকেট নম্বর দিয়ে Verify Ticket  অপশনে ক্লিক করবেন ,তারপর দেখতে পারবেন আপনার টিকিট এর সকল বিস্তারিত তথ্য ।

আপনার এই ট্রেনের টিকিট নিয়ে দিয়ে কোন রকম সমস্যা হয়ে থাকে তাহলে আপনি বিকাশের এই 16247 নাম্বারে কল করতে পারেন অথবা আপনার সমস্যার কথা তাদের কে জানাতে পারেন, এবং সমস্যাটা যদি হয়ে থাকে এরকম যেমন আপনার টাকা কেটে নিয়েছে কিন্তু টিকিট ইস্যু হয়নি তাহলে বিকাশে কল করে আপনি তাদেরকে জানাতে পারেন অথবা

ইমেইল ([email protected]) করে আপনার সমস্যা কথা জানাতে পারেন ।

মোবাইলের মাধ্যমে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম 

আপনি যদি চান খুব সহজেই মুহূর্তের মধ্যে ট্রেনের টিকেট কেটে নিতে পারবেন, হতাশ হবেন না, এই প্রক্রিয়াটি খুবই সহজ।যদি আপনি মনোযোগ সহকারে নিচের লেখাগুলো পড়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই আপনি খুব সহজেই জেনে নিতে পারবেন আশা করি আপনার কোন সমস্যা হবে না।

বর্তমান সময়ে কমবেশি সবাই এখন স্মার্ট ফোনের সাথে সংযুক্ত আর স্মার্টফোন থাকলে ইন্টারনেট থাকবে এটা স্বাভাবিক ।তাই আপনার যদি স্মার্টফোন আর ইন্টারনেট থাকে তাহলে ট্রেনের টিকেট ক্রয় করাটা আপনার জন্য একদমই সহজ।

উপরে আগেই বলেছি সবার আগে আপনার  একটি স্মার্টফোন থাকতে হবে এবং সাথে ইন্টারনেট সংযোগ থাকতে হবে 

তারপরে অবশ্যই আপনার ফোনটি জিমেইল আইডি দিয়ে লগইন করা থাকতে হবে 

তারপরে আপনার ফোনের ক্রোম ব্রাউজারে ঢুকতে হবে  অথবা ইন্টারনেট ব্রাউজার অথবা ফায়ারফক্স ইত্যাদি ব্রাউজারে ব্রাউজ করতে হবে এবং উপরে যে সাইটের কথা বলা হয়েছে অথবা এই ওয়েবসাইট (https://eticket.railway.gov.bd/)  প্রবেশ করতে হবে ।উপরের যে প্রক্রিয়াটি দেখানো হয়েছে অনলাইন টিকেট ক্রয় করার জন্য ,উপরোক্ত প্রক্রিয়াটি অনুসরণ করলে আপনি মোবাইল দিয়ে সহজেই টিকেট ক্রয় করে নিতে পারবেন ,মোবাইল দিয়ে যদি ট্রেনের টিকেট কলকাতা আপনার সমস্যা হয় তাহলে আপনার ক্রোম ব্রাউজার ডেক্সটপ মোড করে নিন ,তাহলে আরো খুব সহজে কাজটি সম্পন্ন করতে পারবেন ।

ট্রেনে ভ্রমণের কিছু নিয়মাবলী 

বাসের থেকে ট্রেনে ভ্রমণ করতে অনেকেই পছন্দ করেন ,এই ট্রেনে ভ্রমণ  বলতে গেলে এক প্রকার দুর্ঘটনা মুক্ত, দুর্ঘটনা হয় তবে অনেকটাই কম।অনেকেই এই  ট্রেনে ভ্রমণ করতে অনেকটা স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন,আমরা যদি যেহেতু ট্রেনে ভ্রমণ করব সেহেতু আমাদের সবার জানা উচিত ট্রেনে ভ্রমণের  নিয়মাবলী।

  •  যার ট্রেনের টিকিট  সেই ব্যবহার করবে ,এটি হস্তান্তরযোগ্য নয়
  • অতিরিক্ত মালামাল পরিবহন করা যাবেনা, মালামাল পরিবহনে একটি নির্দিষ্ট ওজন রয়েছে সেটা আপনাকে অবশ্যই মানতে হবে ,
  • রেলওয়ে কর্তৃক যাত্রা যেকোনো মুহূর্তে বাতিল হয়ে যেতে পারে
  •  সিট অথবা বগি নম্বর সমূহ যেকোনো মুহূর্তে পরিবর্তিত হতে পারে
  • বিনা টিকিটে ভ্রমণ করা দন্ডনীয় অপরাধ’ এজন্য একজন যাত্রী কে বিচারের আওতায় পড়তে হতে পারে ,জরিমানা গুনতে হতে পারে ।

শেষ কথা 

ট্রেন,  যোগাযোগের একটি  সুন্দরতম মাধ্যম। ট্রেনে ভ্রমণ সবাই অনেক পছন্দ করেন। কিন্তু অনেকেই টিকেট ছাড়া ভ্রমণ করতে গিয়ে অনেক সমস্যায় পরে থাকেন । আপনি যদি উপরের পোস্টটি বিস্তারিত পড়ে থাকেন আশা করব আপনার টিকেট ক্রয় করা নিয়ে আপনার কোন সমস্যা থাকবে না। এবং অনলাইনে ট্রেনের টিকেট কাটার নিয়ম সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। আপনি খুব সহজে ট্রেনের টিকেট ক্রয় করে  কোন সমস্যা ছাড়াই যেকোনো জায়গায় যাত্রা করতে পারেন ।আপনার যদি উপরের পোস্টটি পড়ে কোন কোন উপকার হয়ে থাকে নিচে কমেন্ট বক্সে জানাবেন এবং আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন যাতে তারা এই পোস্টটি পড়ে উপকৃত হতে পারেন। 

Have a good journey 

Leave a Reply

Your email address will not be published.

%d bloggers like this: